Quantcast

টেকটিউনস Super Successor : মোহাম্মাদ মেহেদি মেনাফা, প্রতিষ্ঠাতা, BLACK iz Limited

0 টিউমেন্টস 350 দেখা প্রিয়
টেকটিউনস

টেকটিউন সুপার সাকসেসোর গেস্ট: মোহাম্মাদ মেহেদি মেনাফা,  প্রতিষ্ঠাতা, BLACK iz Limited
টেকটিউন সুপার সাকসেসোর হোস্ট: রুবিনা ইয়াসমিন
সময়: মঙ্গলবার, ৫ জুলাই ২০১৭। সকাল ১১ টা।
ব্যাপ্তি: প্রায় ১৫ মিনিট
স্থান: Black iz Limited এর অফিস, ঢাকা।

মোহাম্মাদ মেহেদি মেনাফা, একজন এসইও এক্সপার্ট, ওয়েবসাইট ডিজাইনার এবং ডেভেলপার। ২০০৯ সাল থেকে তিনি এই সেক্টরে কাজ করছেন। নিজে কাজ করার পাশাপাশি, তিনি এসইও এর প্রশিক্ষণও দিয়ে থাকেন। বর্তমানে তিনি BLACK iz Group এর সাথে CEO হিসেবে  কাজ করছে।

তিনি  BLACK iz IT এর প্রধান আইটি বিশেষজ্ঞ এবং SEO Consultant। SEO Consultant হিসেবে তিনি  অন্য অনেক কোম্পানির সাথে কাজ করেছিলেন। ২০০৯ সালে তার লিখা বই "কিছু পাতা" ন্যাশনাল বুক ফেয়ারের  প্রকাশিত হয়।

২০০৯ সালের পরে তিনি Senior news reporter হিসেবে "ঢাকার খবর"এ  এবং chief editor হিসেবে "এমএলএম নিউইয়জ ২4-"এ কাজ করেছেন।

২০১১ সালের মাঝামাঝি সময়ে মোহাম্মদ মেহেদি মেনাফার তার পরিচালিত "সূর্যের মুক্তি" চলচ্চিত্রটি নির্মান  করেছিলেন। তিনি গ্রাফিক্স ডিজাইনিং এবং লোগো ডিজাইনিংয়ের ক্ষেত্রেও  চমৎকার দক্ষতা রাখেন।

আজ টেকটিউনস সুপার সাকসেসোর এ আমাদের সাথে আছেন মোহাম্মাদ মেহেদি মেনাফা। শুনব তার প্রতিষ্ঠানের কথা, তার পরিকল্পপনার কথা।

BLACK iz Limited এর শুরুর কথাটা আমাদের বলুন?

মোহাম্মাদ মেহেদি মেনাফা: BLACK iz Institute নিয়ে আমরা সর্বপ্রথম ২০১১ সালে প্রাথমিক ভাবে আমাদের যাত্রা শুরু করি।
আমরা BLACK iz IT এর নিয়েই আমাদের কাজ শুরু করি। আমাদের মেইন ইচ্ছা ছিল, আমাজন টাইপের প্রোডাক্ট বেস buisness করা। পরবর্তীতে আমাদের যেই BLACK iz IT firm আছে, সেই আইটি ফার্মটার জন্ম হয়। আমরা বিভিন্ন লোকালি এবং ইন্টারন্যাশনালই client নিয়ে আমাদের কাজ শুরু করি এবং এরপর এইসব কাজ করতে করতে আমাদের প্রয়োজনীয়তায় আরও কিছু concerned যোগ হয়। যেমন, Soft coder। এটা BLACK iz এর একটি Sister Concern।

পরর্বতীতে ২০১৪ সালে আমরা BLACK iz কে BLACK iz Limited firm করে ফেলি।  BLACK iz Limited এর আন্ডারে ১৬ টা sister concern কাজ করছে। এরপর মধ্যে কয়েকটা সুনাম-ধন্য কোম্পানির নাম আছে। যেমন, iNEXTerior এটাও BLACK iz Limited এর একটি অঙ্গ প্রতিষ্ঠান। BLACK iz IT তো শুরু থেকেই ছিল।এছাড়া Black IZ IT Institute ও BLACK iz Limited এর একটি concern।

BLACK iz Limited এর বর্তমান অবস্থা সম্পর্কে আমাদের কিছু বলুন।

মোহাম্মাদ মেহেদি মেনাফা: BLACK iz Limited এ BLACK iz IT তে বর্তমানে ৩০ জন ডেভেলপার, মার্কেটার আছে। এদের মধ্যে ৬ বা ৭ জন যারা আছে তারা লোকালি মার্কেটিং এর কাজ করেন এবং ইন্টারন্যাশনাল মার্কেটে কাজ করবার জন্য এবং টেন্ডডার drop করবার জন্য আরও ১০ জন কাজ করে। BLACK iz Limited তে বর্তমানে সরাসরি কাজ করে মোট  ১২০ জন এবং indirectly কাজ করে অর্থাৎ merchant, vendor এদের সহ আছে আরও প্রায় দেড় হাজার এর মত মানুষ।

BLACK iz Limited মত বাংলাদেশে আরও অনেক বড় বড় আইটি Industry হচ্ছে, তো আমাদের কে বাংলাদেশের আইটি Industry নিয়ে কিছু বলুন।

মোহাম্মাদ মেহেদি মেনাফা :বাংলাদেশের আইটি Industry বলতে এখন ২ ধরনের আইটি Industry হয়ে থাকে। কারণ, আইটি Industry গুলো হয় local industry হিসেবে কাজ করে, নয় international industry হিসেবে কাজ করে। BLACK iz Limited যেমন বর্তমানে local ও international industry হিসেবে কাজ করে যাচ্ছে। যেমন,দৈনিক ইনকিলাব এর কাজটি আমাদের করা, easy fly express তারা বাংলাদেশের তৃতীয় বিমান সার্ভিস, তাদের সাথেও আমাদের কাজ চলতেছে।এছাড়াও qatar embassy তাদের কাজ ও আমরা করে থাকি।

এখন যদি আমি বাংলাদেশের international আইটি Industry নিয়ে কথা বলতে চাই তাহলে এটাই বলতে পারি। যেহেতু বাংলাদেশের Labour cost কম সেহেতু এরা ভাল অবস্থানে আছে এবং প্রচুর পরিমাণের কাজের চাহিদাও আছে। ফলে তাদের অবস্থা ভালো আছে। যেহেতু এরা প্রচুর কাজ পায় বাহির থেকে সেহেতু তারা তাদের employee দের ভাল একটা support দিতে পারে। আর যেই আইটি firm গুলো localy ব্যবসা করছে। তারা এখনও এতটা ভালো করতে পারে নাই। এখনকার বাস্তব চিত্রটা এমন যে, সব প্রতিষ্ঠানের যে ওয়েবসাইট আছে তা কিন্তু না। কিছু প্রতিষ্ঠানের ওয়েবসাইট আছে, কিছু প্রতিষ্ঠানের ওয়েবসাইট নাই।

Last time আমরা একটা survey করেছিলাম, আমাদের দেশের হজ্জ এজেন্সি গুলো নিয়ে। তখন আমার একটা পরিসংখ্যান থেকে দেখতে পারলাম যে, আমাদের দেশের হজ্জ এজেন্সি আছে প্রায় ৮ হাজারের মত। হজ্জ এজেন্সি এর যেই ওয়েবসাইট আছে haab-bd.com, তাদের অন্তর্ভুক্ত যেই হজ্জ এজেন্সি গুলো আছে। তাদের মধ্যে ৯৫% এরই এখন পর্যন্ত কোন ওয়েবসাইট বা সফটওয়্যার নাই।

বাকী ৫% এর হয়তো হয়তো ওয়েবসাইট আছে আর এর মধ্যকার ১% এর হয়তো সফটওয়্যার আছে। তো এ পরিসংখ্যান থেকে আমরা এটাই বুঝতে পারলাম, যারা আমাদের দেশে local আইটি industry হিসেবে কাজ করছে, তারা কেউ তেমন ভালো কোন সাড়া পাচ্ছে না।

তো আমাদের বাংলাদেশের ভবিষ্যৎ নিয়ে আমারা এটাই আশা করি। আগামী কয়েক বছরের মধ্যে আমদের দেশের সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, প্রতিটা এজেন্সি গুলোর, প্রতিটা টুর সেন্টার গুলোর, সকল অফিস আদালতের এবং এমনকি মাদ্রাসা গুলোর একটি করে ওয়েবসাইট থাকবে।

আপনাদের প্রতিষ্ঠান নিয়ে আপনাদের ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা কি?

মোহাম্মাদ মেহেদি মেনাফা: BLACK iz Limited এর যদি BLACK iz IT এর ভবিষ্যৎ পরিকল্পনার কথা আমি বলি . তাহলে শুধু এটাই বলতে পারি।আমরা বর্তমানে international মার্কেট place এ নিজেদের যে অবস্থানটা রেখেছি, সেই অবস্থানটা শক্ত ভাবে ধরে রাখতে চাই এবং local মার্কেট place এ ও একটি বড় place নিতে চাই।

আমাদের কিছু ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা আছে, বর্তমানে আমরা ৩টা সফটওয়্যার তৈরি করেছি।সেই  সফটওয়্যার গুলোর জন্য একটা মার্কেট place তৈরি করতে হবে এবং আমাদের টার্গেট  ১০০০০ clients তৈরি করা, যারা আমাদের এই সফটওয়্যার গুলো ব্যবহার করবে এবং monthly basis এ আমাদের একটা service charge দিবে।এটাই আমাদের বর্তমান টার্গেট এবং এটাই আমরা achieve করতে চাই আগামী ৩ বছরের মাঝে।

আমাদের তরুণ প্রজন্মের যারা আপনার মত কাজ করতে চায়, তাদের উদ্দেশ্য কিছু বলুন।

মোহাম্মাদ মেহেদি মেনাফা: আমাদের তরুণরা যদি আইটি ইন্ডাস্টিতে বর্তমানে নতুন ভাবে কাজ করতে চায়, তার জন্য অবশ্যই তাকে প্রথমে আইটির সবগুলো মার্কেটিং সেক্টর সম্পর্কে ভাল ভাবে ধারণা নিতে হবে এবং অবশ্যই তাকে ঠিক করতে হবে  যে, সে কোন সেক্টর এ টিকে থাকতে পারবে এবং ভালো করতে পারবে।কারণ আমাদের আইটি Industry তে রয়েছে ওয়েব ডিজাইন এবং ডেভেলপমেন্ট, গ্রাফিক্স ডিজাইন, ভিডিও এডিটিং সহ আরও অনেক কিছু।

এজন্য অবশ্যই তাকে তার নিজের জন্য একটু ভিডিও এডিটিং, একটু SEO,একটু গ্রাফিক্স ডিজাইন, একটু programming জানতে হবে এবং সে যেই দিক গুলোতে কাজ করে enjoy করতে পারে সেই দিক গুলোও।

যেমন, সে যদি programming ভাল পারে তাহলে programming এর ৩টা language (python, Java, C) সে ভালো মত শিখে নিতে পারে। ওয়েব ডিজাইন এবং ডেভেলপমেন্ট করতে চাইলে তাকে অবশ্যই (HTML, CSS, PHP, Java Script) শিখে নিতে হবে। সব কিছুর পর তার উচিত একটা firm এ minimum ১ বছর কাজ করা। কাজ করলে সে তাদের কাজের ধরন বুঝতে পারবে। তারপর সে ধীরে ধীরে তার কাজ গুলো করতে পারবে। এভাবে আগালে এবং সে যদি নিজে নিজে চেষ্টা করে সে অবশ্যই একদিন success হতে পারবে।

টেকটিউনসের সাথে advertising এবং branding করে আপনি কিভাবে উপকৃত হয়েছেন?

মোহাম্মাদ মেহেদি মেনাফা: BLACK iz IT নিয়ে আমরা শুরু করি ২০১৩ দিকে। ২০১৪ সালে প্রথম আমরা টেকটিউনসের সাথে একটা স্পন্সর টিউনের মাধ্যমে কাজ শুরু করি। আমাদের তখনকার স্পন্সর টিউনের টপিক ছিল আমাদের Institute নিয়ে। তখন এডভারটাইসিং করবার জন্য তেমন কোন প্লাটফরম ছিল না। এডভারটাইসিং করবার জন্য যেই প্লাটফরম ছিল সেগুলো হল ekhone.com, bikroy.com। এগুলো তে আমরা এডভারটাইসিং জন্য যেই টাকা খরচ করতাম তার ৫ ভাগের ১ ভাগ টেকটিউনসে খরচ করাতে আমরা অনেক বড় ধরনের সাড়া পেয়েছিলাম।

এরপর থেকে আমরা টানা প্রায় ৫ বা ৬ বছরের মত সবসময় টেকটিউনসে এডভারটাইসিং করেছি। বর্তমানে আমরা আমাদের IT Institute নিয়ে হয়তো ঐভাবে আর কাজ করতে পারছি না অন্যান্য কাজের চাপ বেশি থাকবার কারণে। BLACK iz IT Institute এখন তাদের premium course গুলো  কম করাচ্ছে। কিন্তু paid course গুলো running নাই‌। আমাদের premium course গুলো আমরা সাধারণত প্রতি ৩ মাস পর পর করাবার চেষ্টা করে থাকি। কিন্তু paid course গুলো running হলে আমরা সাধারণত টেকটিউনসের স্পন্সর টিউন কাজ করে থাকবো। টেকটিউনসের এডভারটাইসিং টা খুবই effective।

কারণ টেকটিউনসে যেই ইউজার রা আছে সবাই classified করা। একটা news portal এ যখন আমরা কোন আইটি রিলেটেড কোন news শেয়ার করবো, সেখান থেকে যেই পরিমাণ response আমারা পেয়ে থাকব। টেকটিউনসের এ সেই news শেয়ার করলে আমরা ১০০% response পেয়ে থাকব এবং টার্গেট কাস্টমার reach করতে পারব সহজেই।

টেকটিউনস সম্পর্কে আপনার কোন পরামর্শ আছে?

মোহাম্মাদ মেহেদি মেনাফা: টেকটিউনসের সম্পর্কে সবার আগে এটাই বলতে চাই, আপনাদের টিউন এর কোয়ালিটি আরও বাড়াতে হবে। টিউন moderate এর বিষয়ে আরও জোর দিতে হবে।কারণ মানুষ যখন এখানে টিউন পড়তে আসে,তখন তারা যাতে কোন কিছুতে বিরক্ত না হয়। টেকটিউনসে ইউজারের জন্য আরও flexible করতে হবে। টেকটিউনসে মানুষ সবসময় মানসম্মত টিউন পড়তে চায়।

টেকটিউনস বাংলাদেশের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি খাতে এক বিপ্লব সৃষ্টি করেছে, এই ক্ষেত্রে আপনার মতামত কি?

মোহাম্মাদ মেহেদি মেনাফা: এটা তো অবশ্যই! যেমন আমি আমার কথা দিয়ে শুরু করি। আমার career এর শুরুতে আমরা তেমন কোন আইটি টেইনিং ছিল না পরবর্তী হয়তো আমি বিভিন্ন অনলাইন কোর্স করেছি। কিন্তু আমার হাতেখড়ি হয়েছে এই টেকটিউনস থেকে। কারণ আমি ইংরেজি হয়তো তখন এত ভাল পারতাম না, তাই আমার এক মাত্র উপায় ছিল টেকটিউনস। টেকটিউনস যে বাংলাদেশের আইটি জগততে এক বিরাট অবদান রেখেছে, এটা আমাদের BLACK iz Limited এর পুরনো যে সকল সদস্য আছে, তারা সকলে স্বীকার করে থাকে।

আমরা BLACK iz Limited এর পক্ষ থেকে টেকটিউনসকে অনেক বেশি ধন্যবাদ জানাই।

মেতে উঠুন প্রযুক্তির সুরে।

টিউনার সৌশল মিডিয়া
Ads by Techtunes - tAds
টিউমেন্টস টিউমেন্ট গুলো

You must be logged in to post a Tumment.