Quantcast

টেকটিউনস Super Successor : ইউসুপ মিয়া সোহেল, প্রতিষ্ঠাতা, King of Laptop Solution

1 টিউমেন্টস 335 দেখা প্রিয়
টেকটিউনস

টেকটিউন Super Successor গেস্ট: ইউসুপ মিয়া সোহেল,  প্রতিষ্ঠাতা, King of Laptop Solution
টেকটিউন Super Successor হোস্ট: রুবিনা ইয়াসমিন
সময়: মঙ্গলবার, ৬ জুলাই ২০১৭।দুপুর ১২ টা।
ব্যাপ্তি: প্রায় ১৫ মিনিট
স্থান: King of Laptop Solution এর অফিস, ঢাকা।

টেকটিউনস Super Successor হিসেবে আজকে আমরা এমন একজন ব্যক্তিকে হাজির করেছি, যে কিনা আইটি জগতে  নিজেকে একজন প্রতিষ্ঠিত ব্যক্তি হিসেবে তুলে ধরবার জন্য চেষ্টা করে যাচ্ছেন এবং দেশের আইটি সেক্টর কে এগিয়ে নিয়ে যাবার জন্য কাজ করে যাচ্ছেন। তিনি তার কর্ম জীবনের হাতেখড়ি শুরু করেছে টেকটিউনস থেকে।

তিনি হচ্ছেন আমাদের সকলের পরিচিত ইউসুপ মিয়া সোহেল সাহেব।তিনি সবসময় নিজে নিজে নতুন নতুন জিনিস শেখার আগ্রহ নিয়ে সামনে এগিয়ে গিয়েছে।সে আরও advanced technology নিয়ে কাজ শিখবার জন্য এবং জানবার জন্য ইন্ডিয়া থেকে desktop or laptop repairing এর কোর্স করে আসে।

দেশে ফিরে এসে তিনি King of Laptop Solution এর কাজ শুরু করেন। King of Laptop Solution এর মাধ্যমে তিনি আমাদের তরুণ সমাজে  desktop or laptop repairing প্রশিক্ষিন প্রদান করছেন।

আজকে উনার মুখ থেকেই শুনতে পারবেন, আমাদের দেশ এর আইটি সেক্টরের অবস্থা এবং অন্যান্য দেশের আইটি সেক্টরের অবস্থা সম্পর্কে।

King of Laptop Solution এর শুরুর কথাটা আমাদের বলেন?

ইউসুপ মিয়া সোহেল: আমরা ২০১৩ সালে থেকে King of Laptop Solution এর যাত্রা শুরু করি।আমরা King of Laptop Solution এর মাধ্যমে laptop repairing course করিয়ে থাকি। অনেক সময় দেখা যায় কোন ব্যক্তির ল্যাপটপ হঠ্যৎ করে নষ্ট হয়ে গেল, সে নিজে হয়তো laptop repairing এর বিষয়ে তেমন কিছু জানে না বুঝে না।সে তার ল্যাপটপ টা যেকোনো ধরনের laptop repairing এর দোকানে নিয়ে গেল। সেই দোকানের ব্যক্তিরা কোন রকমে তার ল্যাপটপ ঠিক করে দিল আর এতগুলো টাকা চার্জ করল।

কিন্তু ২ দিন পর দেখা গুলো ল্যাপটপ এ আবার সমস্যা দেখা দিল। তো সেই থেকেই আমার মাথায় চিন্তা আসে যে সবারই নিজের কিছু জ্ঞান থাকা দরকার computer hardware এর বিষয়ে।যাতে তাদের প্রোডাক্ট গুলো কোন ভুল মানুষের, ভুল কাজের জন্য নষ্ট না হয়। তারা যাতে নিজেরাই বুঝে বুঝে কাজ করতে পারে। সেই জন্যই আমি King of Laptop Solution এর কাজ ২০১৩ সাল থেকেই ঘরে বসে আস্তে আস্তে শুরু করি।

আমি ইন্ডিয়া থেকে laptop repairing course করে আসি, যাতে করে আমি King of Laptop Solution নিয়ে আরও একটু বড় ভাবে কাজ করতে পারে।আমি যখন ইন্ডিয়ায় কোর্স করতে গিয়েছিলাম, আমি দেখতে পেলাম তারা অনেক updated সব কিছুতে। চায়নার পর টেকনোলজির দিক দিয়ে এগিয়ে আছে ইন্ডিয়া। ইন্ডিয়ার টেকনোলজি নিয়ে কাজের ধরন দেখে আমি অনেক অনুপ্রাণিত হই যে আমিএ আমার দেশের জন্য কিছু করতে চাই এবং আমার দেশের যুব সমাজকে এগিয়ে নিয়ে যেতে চাই।

এজন্যই মূল আমি ঐখান থেকে কোর্স শেষ করে এসে এই কাজটি শুরু করি, আমার King of Laptop Solution এর মাধ্যমে।

King of Laptop Solution এর বর্তমান অবস্থা সম্পর্কে কিছু বলেন।

ইউসুপ মিয়া সোহেল: বর্তমানে King of Laptop Solution এ আমরা দুইভাবে কাজ করছি। প্রথমত, আমরা যেই কোর্স করাচ্ছি তা হলও laptop and desktop chip level repairing। অর্থাৎ motherboard এর circuit এ প্রতিটা চিপ কিভাবে সহ প্রতিটা জিনিস নিয়ে কিভাবে কাজ করতে হয় তার পূর্নাঙ্গ শিক্ষা সিলেবাস আকারে আমাদের এখানে দেয়া হয়ে থাকে।

এছাড়াও আমরা laptop এর বিভিন্ন accessories বিক্রি করে থাকি। বর্তমানে আমরা কিছু কোম্পানির সাথে dealer হিসেবেও কাজ করে যাচ্ছি।

বাংলাদেশের আইটি সেক্টর নিয়ে আপনার মতামত কি?

ইউসুপ মিয়া সোহেল: আমাদের দেশ এমন একটি জায়গা।যেখানে অনেক সহজেই ভালো কিছু করা সম্ভব। যেমন, আমাদের garments industry দিকে খেয়াল করলেই আপনি দেখতে পারবেন যে, বাহির থেকে মানুষ এসে কম খরচে অনেক ভালো ভালো প্রোডাক্ট তৈরি করে নিয়ে যায়।

বাহিরের কোম্পানী গুলো আমাদের দেশে এসে কম পুঁজি বিনিয়োগ করে, ভাল মানের পণ্য তৈরি করে নিয়ে যেতে পারে। তাই আমাদের দেশের garments industry এর চাহিদা অনেক।

টেকনোলজির দিক দিয়ে হয়তো সবচেয়ে বেশি এগিয়ে আছে চায়না তাই সকলে হয়তো এখন modern technology এর জন্য চায়নার উপর আস্থা রাখে। আমাদের দেশের আইটি সেক্টর গুলোকে আরও দক্ষ জনবল নিয়োগ দিতে হবে, আরও প্রশিক্ষণ এর ব্যবস্থা করতে হবে।নিজের পণ্য তৈরিতে নিজেরাই কাজ করতে হবে। বড় বড় কোম্পানি গুলো যেমন Symphony,Samsung এরা এখন তাদের কাজের জন্য চায়নাকে বেছে নিয়েছে। চায়নার সাথে এখন জাপান ও টিকে থাকতে পারছে না।আমাদের দেশের কর্মদক্ষতা কম থাকায় আমাদের শ্রমের সঠিক মূল্যায়নটা এই আইটি  সেক্টরে  হচ্ছে না।

আমি চাচ্ছে আইটি এর laptop repairing সেক্টরে কর্মদক্ষতা বাড়াবার জন্য। কর্মদক্ষতা বাড়াতে পারলে তখন আর আমাদের ইন্ডিয়া বা চায়নার উপর আর নির্ভর করতে হবে না।তখন আমাদের দেশে  আইটি সেক্টররে আর কাজের এবং দক্ষ জনবলের ও অভাব হবে না।

আপনাদের প্রতিষ্ঠান নিয়ে আপনাদের ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা কি?

ইউসুপ মিয়া সোহেল: আমরা আমাদের প্রতিষ্ঠানকে আরও বড় করতে চাই, latest technology এর সাথে তাল মিলিয়ে চলতে চাই। নতুন নতুন প্রোডাক্ট আনতে চাই মার্কেটে।আমাদের laptop repairing course কে আরও বড় পরিসরে এগিয়ে নিয়ে যেতে চাই।এটাকে Polytechnical Institute হিসেবে গড়ে তুলতে চাই। যাতে করে বাংলাদেশের কর্মসংস্থান বাড়াতে আমি ভূমিকা রাখতে পারি।

আমাদের তরুণ প্রজন্মের জন্য কিছু বলুন, যারা আপনার মত এই buisness এ আসতে চায়।

ইউসুপ মিয়া সোহেল: আমাদের সমাজে শিক্ষিত মানুষ অনেক আছে কিন্তু কর্মক্ষম মানুষ এর সংখ্যা অনেক কম। যার জন্য বেশিভাগ সময়ে দেখা যায় বেকার মানুষের হার একটু বেশি। তাই পড়ালেখা শেষ হবার আগেই নিজেকে কিছু কাজের সাথে জড়িত করলে বা প্রশিক্ষণ নিলে হয়তো career গড়তে খুব বেশি সমস্যা হবার কথা নয়। তাই আমি চাই মানুষ নিজেকে শিক্ষিত করবার পাশাপাশি, নিজেকে কর্মক্ষম হিসেবে গড়ে তুলুক।

বিল গেটস যেমন নিজেকে প্রযুক্তির সাথে জড়িত রেখে আজ এত বড় হতে পেরেছে। আমাদের দেশ এখন অনেক এগিয়ে গিয়েছে। অনেক অনেক বড় বড় কোম্পানি গড়ে উঠেছে। আমাদের তরুণ সমাজের জন্য এখন অনেক বড় বড় opportunity রয়েছে নিজেকে অনেক ভাল অবস্থানে নিয়ে যাবার।

 

টেকটিউনস বাংলাদেশের তথ্য প্রযুক্তি খাতে এক বিপ্লব সৃষ্টি করেছে, এ ব্যাপারে আপনার মতামত কি।

ইউসুপ মিয়া সোহেল: সর্বপ্রথম আমি আমার মনের গভীর থেকে টেকটিউনসকে জানাই অনেক অনেক শুভেচ্ছা আর অনেক অনেক ধন্যবাদ আমাদের কে এত এত সাহায্য করবার জন্য।

কারণ টেকটিউনস এমন একটা platform যেখানে আমরা সকল আইটি জগতের খবরা-খবর পেয়ে থাকি, সকল সমস্যা সমাধান ও পেয়ে থাকি।আমাদের মধ্যে যারা ইংরেজিতে অনেক দুর্বল তাদের শেখার জন্য এটা একটা best  platform। এতে কোন সন্দেহ নাই যে টেকটিউনস আমাদের তথ্যপ্রযুক্তি খাতে যে কত বড় অবদান রেখেছে। আমরা সবাই অনেক অনেক কৃতজ্ঞ টেকটিউনসের কাছে।

টেকটিউনস এ এডভারটাইসমেন্ট এবং ব্যান্ডিং করে আপনি কিভাবে উপকৃত হয়েছেন।

ইউসুপ মিয়া সোহেল: আমি একজন টেকটিউনার। আমি আগে জানতাম না টেকটিউনস নীতিমালা সম্পর্কে। আমি যখন আমাদের King of Laptop Solution নিয়ে কাজ করতে চাইলাম টেকটিউনসের সাথে, তখন আমি প্রথম নীতিমালা সম্পর্কে জানতে পারলাম।

এখানে এডভারটাইসমেন্ট এবং ব্যান্ডিং করবার পর আমি প্রচুর সাড়া পেয়েছি। আমি প্রচুর viewer পেয়েছি। এই platform এর মাধ্যমে মানুষ King of Laptop Solution সম্পর্কে জেনেছে, চিনেছে। King of Laptop Solution মানুষের কছে পরিচিত হয়েছে।

টেকটিউনস এ এডভারটাইসমেন্ট এবং ব্যান্ডিং নিয়ে আপনার কোন পরামর্শ আছে।

ইউসুপ মিয়া সোহেল: আমি চাই টেকটিউনস এখন আরও ভালো ভালো কিছু কাজ করুক। এখন ইউজাররা শুরু পড়তে চায়না। ইউজাররা চায় দেখে দেখে শিখতে। টেকটিউনসের টিউনগুলো এখন ভিডিও টিউন করা অনেক জরুরি। আমি মনে কি, বাংলাদেশে টেকটিউনস যেমন বাংলা ভাষার প্রথম টিউটোরিয়াল সাইট। তেমনি ভাবে একটি ভিডিও টিউটোরিয়াল সাইটও আমাদের ইউজারদের জন্য অনেক জরুরি। আমাদের ইউজারদের জন্য এই platform কে আরও কাজ করতে হবে। যাতে মানুষ যখন কিছু শিখবে টেকটিউনস ভিজিট করে, তখন কোন কিছু শিক্ষাটা যেন তার জন্য আরও সহজ হয়।

টেকটিউনস আমাদের জন্য আছে, আমাদের জন্য থাকুক সবসময়। এটাই আশা করব। ধন্যবাদ টেকটিউনসকে, ধন্যবাদ টেকটিউনসের সকল সদস্যকে। আপনাদের সকলের কাছে আমি দোয়া প্রার্থী। আপনারা আমাদের জন্য অনেক দোয়া করবেন। যাতে করে আমরা আমাদের King of Laptop Solution কে আরও অনেক দূর এগিয়ে নিয়ে যেতে পারি। আর আমাদের দেশের জন্য কিছু করতে পারি।

মেতে উঠুন প্রযুক্তির সুরে।

টিউনার সৌশল মিডিয়া
Ads by Techtunes - tAds
টিউমেন্টস টিউমেন্ট গুলো

এটা আবশ্যই ভাল উদ্যগ ফোন নম্বর দিন

You must be logged in to post a Tumment.